November 22, 2020 1:49 pm

ইউটিউবে ‘ডিজলাইকের’ শীর্ষে নোবেল!

বাংলাদেশের উঠতি তরুণ সঙ্গীতশিল্পী মাঈনুল আহসান নোবেল। দুই বাংলার দর্শকরাই তার গায়কীতে মুগ্ধ। শুধু দর্শকদের মুগ্ধতাই নয়, নোবেল প্রশংসা পেয়েছেন খ্যাতনামা সঙ্গীতজ্ঞদের কাছ থেকেও।  

তবে নিজের করা অনেক মন্তব্যে অহংকার প্রকাশ পেয়েছে এই উঠতি সঙ্গীতশিল্পীর। যার কারণে নিজেদের পছন্দের তালিকা থেকে নাম কেটে দিচ্ছেন ভক্তরা।

 যার প্রমাণ পাওয়া গেল বাংলাদেশে নোবেলের মুক্তি পাওয়া নোবেলের প্রথম মৌলিক গানে। আজ রবিবার নোবেলের প্রথম মৌলিক গান মুক্তি পেয়েছে। ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফরম ইউটিউবে প্রকাশিত এই গানের পাশে পছন্দের চেয়ে অপছন্দের চিহ্নই বেশি দেখাচ্ছেন ভক্তরা। 

এই প্রতিবেদন লেখার সময় থেকে ছয় ঘণ্টা আগে গানটি প্রকাশ করেন নোবেল তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে। সেখানে গানটিতে পছন্দের বাটন (লাইক) চাপেন ২৭ হাজার শ্রোতা এবং অপছন্দের (ডিজলাইক) ২ লাখ ২৯ হাজার শ্রোতা। ফলে অপছন্দ করছে কয়েকগুণ শ্রোতা। যেটা নোবেলের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডের কারণেই বলে মনে করছেন ভক্তরা। তবে ভিডিও দেখেছেন ৮ লাখের উপরে মানুষ।

নোবেলের ভাষ্যমতে তিনি নতুন গান মুক্তির জন্য আলোচনা তৈরির চেষ্টা করছিলেন, যার কারণে সংগীত জগতের অনেক শীর্ষ ও গুণী ব্যক্তিও নোবেলের এসব কাণ্ডে মানসিকভাবে আঘাত প্রাপ্ত হন। শুধু তাই নয়, র‍্যাব অফিসে গিয়ে নোবেলকে ক্ষমা চাইতে হয়, ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে নোবেলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। এসব কারণে মারাত্মক ধ্বস নামে নোবেলের জনপ্রিয়তায়। ভক্তরা হয়তো এই নোবেলকে চাননি। যার কারণে নোবেলকে এখন প্রত্যাখান করছেন।

প্রকাশিত গানের কমেন্ট বক্সেও নেতিবাচক মন্তব্যের ছড়াছড়ি। ফলে সহসাই নোবেল তার আগের জনপ্রিয়তা ফিরে পাবেন কি না সন্দেহ রয়েছে!

খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই সম্পর্কিত আরো খবর...