May 17, 2022, 7:11 am

নারী দিবসে পরীমনির উদ্দেশে রাজ: তুমি না থাকলে জীবন এত সুন্দর হতো না

Spread the love

গেল মাসের শেষ সপ্তাহে ফেসবুক পেজে রাজের সঙ্গে একটি ছবি প্রকাশ করেছেন পরীমনি। স্ট্যাটাসে খুশির ইমো দিয়ে লিখেছেন, ‘শব্দেরা মিলিয়ে যায়।’ ছবিতে দেখা যাচ্ছে, পেটে হাত রেখে হাস্যোজ্জ্বল মুখে দাঁড়িয়ে পরী। পেছন থেকে তাঁকে জড়িয়ে ধরে আছেন রাজ। ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে একটি নতুন ছবি শেয়ার করে আবেগপূর্ণ স্ট্যাটাস দেন শরিফুল রাজ। সে স্ট্যাটাসের জবাবও দেন পরীমনি। ফেসবুকে সে ছবি বেশ সাড়া ফেলেছে।
বিশ্ব নারী দিবসে পরীমনি ব্যস্ত রয়েছেন ঢাকার অদূরে অরণ্য আনোয়ারের ‘মা’ সিনেমার সেটে। স্ত্রী পরীমনিকে লক্ষ্য করে ফেসবুকে একটি বিশেষ বার্তা দিয়েছেন রাজ। পরীমনি অনেক সহনশীল ও সাহসের সঙ্গে লড়াই করেন জানিয়ে তিনি লেখেন, ‘তুমি অনেক কঠিন সময়ের মুখোমুখি হয়েছ এবং সেটাকে সাহসিকতার সঙ্গে মোকাবেলা করেছ। শুধু তা-ই নয়, হাসির মাধ্যমে তুমি হৃদয়ের কষ্টগুলো লুকিয়েছ আমার কাছ থেকে। তুমি সত্যিকারের একজন শক্তিমান নারী। যেমনটা সচরাচর দেখা যায় না। তুমি না থাকলে জীবন এতটা সুন্দর হতো না। হ্যাপি ওমেন্স ডে মাই লেডি।’

শরিফুল রাজের এমন শুভেচ্ছাবার্তার জবাব দিলেন পরীও। লিখলেন, ‘অনেক সম্মানিত করেছ তুমি। অনেক ভালোবেসেছ। আমি কৃতজ্ঞ তোমার হৃদয়ের কাছে। আমার জীবনের পূর্ণতা তুমি।’ পরীর এমন উত্তরের বিপরীতে খানিক মজা করতেও ছাড়লেন না রাজ। পরীকে বললেন, ‘আপনি তো দারুণ কবিও বটে!’
ঢাকার চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনির অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর সবার জানা। প্রায় তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা তিনি। ‘গুণিন’ সিনেমায় কাজ করতে গিয়েই রাজের সঙ্গে তাঁর প্রথম দেখা হয়। সেই দেখার মাত্র সাত দিনের মাথায় গোপনে বিয়ে করেন তাঁরা। তারিখটা ছিল ২০২১ সালের ১৭ অক্টোবর। শরিফুল রাজ ও পরীমনির বিয়ের ঘটক ছিলেন পরিচালক গিয়াস উদ্দিন সেলিম। আর উকিল বাবা ছিলেন রেদওয়ান রনি। এই দুজনের চেষ্টায় চার হাত এক হয়। বিয়ের পরে নিজেদের বন্ধু নয়, স্বামী-স্ত্রী ভাবতেই ভালো লাগে পরীমনির।

এক সাক্ষাৎকারে পরীমনি বলেন, ‘আমরা বিয়ের আগেও কখনো বন্ধু ছিলাম না। আমাদের ঘটা করে বন্ধুত্ব করা হয়নি। বন্ধুরা যেমন সময় কাটায়, সেভাবে সময়ও কাটানো হয়নি।’ শরিফুল রাজ বলেন, ‘এখন আমরা বন্ধুর মতো সময় কাটাচ্ছি।’

১১ মার্চ শুক্রবার প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত চরকি অরিজিনাল সিনেমা ‘গুণিন’। গ্রামীণ ওঝা রজব আলী গুনিনকে নিয়ে ছবির গল্প। আধ্যাত্মিক ক্ষমতার কারণে গ্রামে তিনি অত্যন্ত প্রভাবশালী।

তিন নাতি—রহম, আলী ও রমিজ। গুনিনের রহস্যজনক মৃত্যুর পর দুই নাতির মধ্যে দ্বন্দ্ব ও ত্রিভুজ প্রেমের গল্প ছবির মূল উপজীব্য। কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হকের ছোটগল্প ‘গুণিন’ থেকে সিনেমার চিত্রনাট্য তৈরি করা হয়েছে। সিনেমার নামভূমিকায় অভিনয় করেছেন আজাদ আবুল কালাম। মুখ্য দুই চরিত্রে দেখা যাবে শরিফুল রাজ ও পরীমনিকে। সিনেমায় তাঁরা রমিজ ও রাবেয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এই সম্পর্কিত আরো খবর...
العربية বাংলা English हिन्दी