May 18, 2022, 10:18 am

কেজরিওয়ালের লক্ষ্য এবার মোদির গুজরাট

Spread the love

দিল্লির বাইরে প্রথম কোনো রাজ্য হিসেবে পাঞ্জাবে সরকার গঠন করেছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি (আপ)। অপেক্ষাকৃত ছোট রাজ্য গোয়াতেও নিজেদের ছাপ ফেলেছে দলটি। কেজরিওয়ালের আপের লক্ষ্য এবার গুজরাট জয়।

১৯৯৫ সাল থেকে গুজরাটে ক্ষমতায় বিজেপি। চলতি বছরের শেষে গুজরাটের বিধানসভা নির্বাচন। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী মান সিংকে নিয়ে আজ (২ এপ্রিল) শনিবার গুজরাটে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল।

দুই দিনের সফরে আহমেদাবাদে গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনে আপের প্রচারণা শুরু করেছেন দিল্লি ও পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী। আজ (২ এপ্রিল) তাঁরা শবরমতী আশ্রম পরিদর্শন করবেন। এরপর দুই কিলোমিটারের একটি রোড শোয়ে অংশ নেবেন। কাল রোববার দুই মুখ্যমন্ত্রী আহমেদাবাদের স্বামী নারায়ণ মন্দির পরিদর্শনে যাবেন।

গত (৩০ মার্চ) বুধবার দিল্লিতে মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়ালের বাসভবনে হামলা হয়েছে। বিজেপির যুব সংগঠন ভারতীয় যুব মোর্চার ২০০ কর্মী কেজরিওয়ালের বাসভবনে হামলা করেন। দুই নেতার নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কার কারণে আপ মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল ও মান সিংকে বাড়তি নিরাপত্তা দিতে আহমেদাবাদ পুলিশ প্রধানকে আহ্বান জানানো হয়।

পাঞ্জাব বিধানসভার আসনসংখ্যা ১৮২। গত বছর কেজরিওয়াল ঘোষণা দেন, আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে গুজরাটের সব আসনে লড়বে আপ। গত বছরের মার্চে গুজরাটের স্থানীয় নির্বাচনে ভালো করে দলটি। তালুকা পঞ্চায়েতে ৩১টি, ৯টি পৌরসভা ও ২টি জেলা পঞ্চায়েত মিলিয়ে দলটি মোট ৪২টি আসনে জয় পেয়েছে।
গুজরাটে আপের অভিষেক ঘটে ২০১৭ সালের বিধানসভা নির্বাচনে। সেবার ২৯টি আসনে প্রার্থী দেওয়া হলেও একটি আসনেও আপের প্রার্থী জেতেননি। এমনকি এসব প্রার্থীর সবার জামানত পর্যন্ত বাজেয়াপ্ত হয়। আপের দুই প্রধান নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়াল ও মনিশ সিসোদিয়া সেবার ভোটারদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে ব্যর্থ হন। তবে এবার পরিস্থিতি ভিন্ন। পাঞ্জাবে ক্ষমতাসীন কংগ্রেসকে হারিয়ে সহজ জয় পেয়েছে আপ। সেই আত্মবিশ্বাস নিয়ে এবার আগেভাগেই প্রচারণা শুরু করেছে দলটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এই সম্পর্কিত আরো খবর...
العربية বাংলা English हिन्दी