এ কোন মিথিলা?

Spread the love

দিগ্ভ্রান্ত চাহনি। চুলে জট, হাতে পিস্তল। এ এক অন্যরকম মিথিলা!
লেডি ম্যাকবেথ অবলম্বনে কলকাতায় নির্মিত হচ্ছে ‘মায়া’। এই সিনেমা দিয়েই টালিউডে বাংলাদেশের অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলার অভিষেক হচ্ছে। এ খবর পুরোনো। নতুন খবর, প্রকাশ হয়েছে ছবিটির প্রথম ঝলক, যেখানে মায়া রূপে দেখা গেছে মিথিলাকে।

ছবিটি পরিচালনা করছেন রাজর্ষি দে। ১২ জুলাই ছবির কাজ শুরু করেছিলেন তিনি, সম্প্রতি কাজ শেষ হয়েছে। চলছে ছবিটি পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ। ডিসেম্বরে মুক্তি দেওয়ার ইচ্ছা পরিচালকের।

যোগাযোগ করা হলে অভিনেত্রী মিথিলা বলেন, ‘এখন কলকাতায় আছি। বৈবাহিক সূত্রে এখানে থাকা হয় আমার। এখানে কাজ করছি, করার ইচ্ছাও আছে। মায়া আমার কাঙ্ক্ষিত একটি চরিত্র। এ দেশে (ভারতে) ছবি করতে গিয়ে ঠিক যে ধরনের চরিত্র মনে মনে আশা করেছিলাম, মায়া ঠিক সে রকম একটি চরিত্র। মায়ার ভেতরে অনেক মায়া আছে। আছে প্রচণ্ড শক্তি।

মায়ার ভাবনা কোথা থেকে এল? গেল মাসের শেষ সপ্তাহে জানতে চাইলে পরিচালক রাজর্ষি দে প্রথম আলোকে বলেছিলেন, ম্যাকবেথ তাঁর পাঠ্য ছিল। তাঁর মতে, ইংরেজি সাহিত্যে এর থেকে বড় ট্র্যাজেডি তো আর হয় না। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়, “লেডি ম্যাকবেথ” খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা চরিত্র। গল্পটাকে আমি পুনর্নির্মাণ করেছি। নারীর ক্ষমতায়নের ব্যাপারটা তুলে ধরেছি।’

ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজারের অনলাইন সংস্করণে বলা হয়েছে, ছবিতে মাহিরা থেকে মায়া হয়ে ওঠার ভ্রমণে বিভিন্ন রূপে মিথিলাকে দেখা যাবে। ১৯৮৯-এর কলকাতায় গল্পের শুরু, যা এসে শেষ হয় সাম্প্রতিক সময়ে। ধর্ষিত হওয়ার পরে এক নারী কীভাবে ঘুরে দাঁড়ায়, পুরুষতন্ত্রের শিকল ছেঁড়ার প্রেরণা জোগায় অন্য নারীদের, সেই গল্পই বলবে ‘মায়া’।

পরিচালকের ভাষায়, ‘আমার মনে হয় নাটকটা যে সময়ে লেখা, তখন অভিনয়ের জন্য নারী চরিত্র পাওয়া যেত না বলেই হয়তো ম্যাকবেথকে সামনে রাখা হয়েছিল। কাহিনির আসল চালিকা শক্তি কিন্তু লেডি ম্যাকবেথ।’

দেবদাস বন্দ্যোপাধ্যায় ও রোহিত বন্দ্যোপাধ্যায় প্রযোজিত এ ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন পরিচালক কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়, সুদীপ্তা চক্রবর্তী, তনুশ্রী চক্রবর্তী, অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, গৌরব চক্রবর্তী প্রমুখ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই সম্পর্কিত আরো খবর...
العربية বাংলা English हिन्दी