স্বামীর পর্নো ব্যবসার জন্য শিল্পার কোটি কোটি টাকার ক্ষতি

Spread the love

ইতিমধ্যে দুই কোটি রুপির বেশি ক্ষতির মুখ দেখতে হয়েছে বলিউড নায়িকা শিল্পা শেঠি। আর যত দিন যাবে, এই ক্ষতির অঙ্ক বাড়তেই থাকবে। স্বামী রাজ কুন্দ্রা পর্নোগ্রাফি মামলায় অভিযুক্ত হওয়ার পর থেকে শিল্পার ক্যারিয়ার প্রায় ডুবতে বসেছে।
সনি চ্যানেলের জনপ্রিয় ডান্স রিয়ালিটি শো ‘সুপার ডান্সার’–এ বিচারক শিল্পা শেঠি। রাজ কুন্দ্রা পর্নোগ্রাফি মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকে শিল্পা এই রিয়ালিটি শো থেকে একদম গায়েব। শিল্পা শেঠি কে আবার কবে দেখা যাবে, তা নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন আছে। এই সপ্তাহে তাঁর জায়গায় দেখা যাবে প্রবীণ অভিনেত্রী মৌসুমি চ্যাটার্জি ও সোনালি বেন্দ্রেকে।

সম্প্রতি এই নাচের শোর দুটি উইকেন্ড পর্বের শুটিং শেষ হলো। তাই আগামী দুই সপ্তাহ শিল্পাকে ‘সুপার ডান্সার ফোর’–এর বিচারকের আসনে দেখা যাবে না নিশ্চিত। এই ডান্স রিয়ালিটি শোর অন্যতম মূল আকর্ষণ যে তিনিই, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। শিল্পার পাশাপাশি তাঁর সংলাপ ‘সুপার সে উপার’ সমান জনপ্রিয়।

সুপার ডান্সারের দুটি সপ্তাহে তাঁকে দেখা যায়নি। এই বলিউড অভিনেত্রীর তাই দুই কোটির বেশি লোকসান হয়েছে। এখন পর্ব প্রতি শিল্পা আয় করেন ২০ থেকে ২৫ লাখ রুপি। তিনি এই রিয়ালিটি শোর সবচেয়ে দামি বিচারক। পরিচালক অনুরাগ বাসু আর কোরিওগ্রাফার গীতা কাপুরের সঙ্গে চার বছর ধরে তাঁকে বিচারকের আসনে দেখা গেছে।

শিল্পার গ্ল্যামার আর ফ্যাশন স্টেটমেন্ট এই শোকে আরও ঝলমলে করে তুলেছে। দর্শকদের অত্যন্ত পছন্দের বিচারক এই বলিউড তারকা। তবে রাজের পর্নোগ্রাফি ব্যবসার জন্য শিল্পাকে বড় মাসুল দিতে হতে পারে। এখন গুঞ্জন যে এই বলিউড নায়িকার জন্য সুপার ডান্সারের দরজা আপাতত বন্ধ হতে চলেছে। তবে চ্যানেলের পক্ষ থেকে এই ব্যাপারে কোনো ঘোষণা হয়নি। রাজ জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর শিল্পা আবার হয়তো তাঁর আসনে ফিরতে পারেন।

এদিকে পুলিশ রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে আরও জোরালো প্রমাণ সংগ্রহ করতে কোমর বেঁধে নেমেছে পুলিশ। এ মামলায় অভিযুক্ত সবার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ভালো করে খতিয়ে দেখছে তারা। ক্রাইম ব্রাঞ্চের দাবি যে পর্নোগ্রাফি ব্যবসা থেকে রাজ কোটি কোটি রুপি আয় করতেন। এদিকে আবার মডেল তথা অভিনেত্রী সাগরিকা সোনা সুমন ফাঁস করেছেন যে এই ছবিগুলো থেকে শুধু রাজই নয়, ছবির অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও কোটি কোটি রুপি আয় করতেন। ক্রাইম ব্রাঞ্চ এ অভিনেত্রীকে সমন পাঠিয়েছে।

সাগরিকার দাবি, সম্প্রতি যে অভিনেত্রীকে কলকাতা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তাঁর মাসিক আয় ছিল ৩০-৩৫ লাখ রুপি। পর্নো ভিডিও আর অনলাইনের শোগুলো থেকে ওই অভিনেত্রী বছরে ৫ কোটি রুপির মতো আয় করেছেন। সাগরিকা বলেছেন, এসব ছবির মাধ্যমে অনেক অভিনেত্রী প্রতি মাসে লাখ লাখ রুপি আয় করেছেন। এঁদের সবাই বছরে তিন থেকে পাঁচ কোটি রুপি আয় করেন। এ অভিনেত্রীর দাবি, ‘হটশটস’ অ্যাপের আসল মালিক রাজ কুন্দ্রাই।

সাগরিকা আরও জানিয়েছেন, লকডাউনে যখন সব ব্যবসা বন্ধ ছিল, তখন পর্নোগ্রাফির ব্যবসা রমরমিয়ে চলেছে। মাড আইল্যান্ডের এক বাংলোতে অশ্লীল ছবিগুলোর শুটিং হতো। আর একেকটা ভিডিও শুট করতে ছয় ঘণ্টার মতো সময় লাগত বলে জানিয়েছেন সাগরিকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই সম্পর্কিত আরো খবর...
العربية বাংলা English हिन्दी