এক সপ্তাহে প্রায় ২৭ শতাংশ রোগী কমেছে

Spread the love

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমেছে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে দেশে নতুন রোগী কমেছে প্রায় ২৭ শতাংশ। আর মৃত্যু কমেছে প্রায় ৯ শতাংশ। এ সময়ে পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হারও কমেছে। তবে শনাক্তের হার এখনো ২০ শতাংশের বেশি।

দেশে টানা ১০ সপ্তাহ পর এক সপ্তাহের ব্যবধানে মৃত্যু কমতে দেখা গেল। আর টানা দ্বিতীয় সপ্তাহের মতো নতুন রোগীর সংখ্যাও নিম্নমুখী। গত মে মাসের মাঝামাঝি থেকে জুলাইয়ের শেষ পর্যন্ত প্রতি সপ্তাহে নতুন রোগী বাড়ছিল।

গতকাল শনিবার দেশে সংক্রমণের ৭৫তম সপ্তাহ (৮–১৪ আগস্ট) শেষ হয়। এই সপ্তাহে মোট ৬৮ হাজার ৮২২ জনের দেহে সংক্রমণ শনাক্ত হয়। এ সময়ে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৫৭৭ জনের। গত এক সপ্তাহে মোট ৩ লাখ ১১৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এক সপ্তাহে মোট পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ছিল প্রায় ২৩ শতাংশ। তার আগের সপ্তাহে (১ থেকে ৭ আগস্ট) ৯৩ হাজার ৯১২ জনের দেহে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছিল, মৃত্যু হয়েছিল ১ হাজার ৭২৬ জনের। ওই সপ্তাহে রোগী শনাক্তের হার ছিল ২৮ শতাংশের মতো।

দেশে প্রথম এই ভাইরাসে সংক্রমণ শনাক্তের কথা জানানো হয় গত বছরের ৮ মার্চ। চলতি বছরের মার্চে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়। মাঝে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এসেছিল। পবিত্র ঈদুল ফিতরের পর মে মাসের শেষ দিক থেকে সংক্রমণ বাড়তে থাকে। জুলাই মাসে এসে পরিস্থিতি ভয়ংকর আকার ধারণ করে। দুই মাসের বেশি সময় পর চলতি মাসের প্রথম দিন থেকে সংক্রমণ কমতে দেখা যাচ্ছে। ১ আগস্ট রোগী শনাক্তের হার ছিল প্রায় ৩০ শতাংশ। এরপর থেকে প্রতিদিন শনাক্তের হার কমছে।

তবে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ থেকে এখনো অনেক দূরে বাংলাদেশ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্ধারণ করা মানদণ্ড অনুযায়ী, কোনো দেশে রোগী শনাক্তের হার টানা দুই সপ্তাহের বেশি ৫ শতাংশের নিচে থাকলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলে ধরা যায়। দেশে রোগী শনাক্তের হার এখনো ২০ শতাংশের ওপরে।

গতকাল শনিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শুক্রবার সকাল আটটা থেকে গতকাল সকাল আটটা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে মোট ৩৩ হাজার ৩৩০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাঁদের মধ্যে ৬ হাজার ৮৮৫ জনের দেহে সংক্রমণ শনাক্ত হয়। পরীক্ষার বিপরীতে গতকাল রোগী শনাক্তের হার ছিল ২০ দশমিক ৬৬ শতাংশ। গত ২৬ জুলাইয়ের পর এই প্রথম দেশে এক দিনে শনাক্তের সংখ্যা সাত হাজারের নিচে নামল। দুদিন ধরে করোনায় মৃত্যুও কমতির দিকে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ১৭৮ জনের মৃত্যুর তথ্য দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

গতকাল পর্যন্ত দেশে মোট ১৪ লাখ ১২ হাজার ২১৮ জনের দেহে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়। তাঁদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১২ লাখ ৮১ হাজার ৩২৭ জন। আর মারা গেছেন ২৩ হাজার ৯৮৮ জন। মোট শনাক্তের সংখ্যা বিবেচনায় মৃত্যুহার ১ দশমিক ৭০ শতাংশ।

সংক্রমণের গতি ঠেকাতে ১ জুলাই থেকে দুই সপ্তাহের বিধিনিষেধ আরোপ করেছিল সরকার। ঈদের জন্য আট দিন বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ার পর ২৩ জুলাই থেকে তা আবার জারি করা হয়। ১১ আগস্ট থেকে প্রায় সব বিধিনিষেধ তুলে দেওয়া হয়েছে। এতে রাস্তাঘাট, যানবাহন, শপিং মল—সবখানেই মানুষের ভিড় বাড়ছে। স্বাস্থ্যবিধিও যথাযথভাবে নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। এই অবস্থা চলতে থাকলে যেকোনো সময় পরিস্থিতি আবার অবনতির দিকে যাওয়ার আশঙ্কা আছে বলে মনে করছেন জনস্বাস্থ্যবিদেরা

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই সম্পর্কিত আরো খবর...
العربية বাংলা English हिन्दी