আইয়ুব বাচ্চুর ৫৮তম জন্মদিন আজ

Spread the love

বাংলা ব্যান্ড সংগীতের কিংবদন্তি গিটারিস্ট আইয়ুব বাচ্চু। তুমুল জনপ্রিয় বাংলা ব্যান্ড ‘এলআরবি’র প্রতিষ্ঠাতা তিনি। আশির দশক থেকে গানে, সুরে ও কথায় তিনি মন জয় করেছেন বাঙালি হৃদয়। সংগীতে তিনি একাধারে ছিলেন গীতিকার, সুরকার, সংগীত পরিচালক ও গায়ক।

আধুনিক, ক্লাসিকাল সংগীত এবং লোকগীতি গেয়েও শ্রোতাদের মুগ্ধতায় ভাসিয়েছেন তিনি। শুধু দেশে নয়, দেশের সীমানা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও তিনি ছিলেন অনবদ্য। তাকে বলা হয় ‘গিটারের জাদুকর’। কেউ তাকে ভালোবাসেন রুপালি গিটারের আইয়ুব বাচ্চু হিসেবে।

গিটারের জাদুকর আইয়ুব বাচ্চুর আজ জন্মদিন। এই দিনে তারকার ভক্ত-অনুরাগীরা তাকে স্মরণ করছেন শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায়।

১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। ২০১৮ সালের ১৮ অক্টোবর পৃথিবী থেকে বিদায় নেন সবার পছন্দের এই মানুষটি।

আইয়ুব বাচ্চুর প্রথম অ্যালবাম ‘রক্তগোলাপ’ প্রকাশ হয়েছিলো ১৯৮৬ সালে। এই অ্যালবামটি তেমন একটা সাফল্য পায়নি। বাচ্চুর সফলতার শুরু তার দ্বিতীয় একক অ্যালবাম ‘ময়না’ (১৯৮৮) দিয়ে।

১৯৯১ সালে ‘এলআরবি’ ব্যান্ড গঠন করার পর এই ব্যান্ডের সঙ্গে তার প্রথম অ্যালবাম ‘এলআরবি’ প্রকাশিত হয় ১৯৯২ সালে। এটি বাংলাদেশের প্রথম দ্বৈত অ্যালবাম। এই অ্যালবামের ‘শেষ চিঠি কেমন এমন চিঠি’, ‘ঘুম ভাঙ্গা শহরে’, ‘হকার’ গানগুলো জনপ্রিয়তা লাভ করেছিলো।

১৯৯৫ সালে তিনি বের করেন তৃতীয় একক অ্যালবাম ‘কষ্ট’। সর্বকালের সেরা একক অ্যালবামের একটি বলে অভিহিত করা হয় এটিকে। এই অ্যালবামের প্রায় সবগুলো গানই জনপ্রিয়তা পায়।

চলচ্চিত্রে গান করেও দুর্দান্ত সাড়া পান তিনি। তার গাওয়া ‘আম্মাজান’ সিনেমার টাইটেল সংটি সারাদেশের মানুষের কাছে আজও জনপ্রিয়।

আইয়ুব বাচ্চুর অসংখ্য জনপ্রিয় গানের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- ‘সেই তুমি কেন এতো অচেনা হলে’, ‘এক আকাশের তারা তুই একা গুনিসনি’, ‘এখন অনেক রাত’, ‘উড়াল দেবো আকাশে’, ‘আমি বারো মাস তোমায় ভালোবাসি’, ‘হাসতে দেখো গাইতে দেখো, ‘এই রূপালি গিটার ফেলে…’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই সম্পর্কিত আরো খবর...
العربية বাংলা English हिन्दी